জোরপূর্বক বিবাহ

আপনার কি মনে হচ্ছে , যে আপনাকে বিবাহ বন্ধনে আব্বদ্ধ হতে জোর করা হচ্ছে পরিবার অথবা পরিস্থিতির মাদ্ধমে ?

হতে পারে যে আপনাকে সিদ্ধান্ত টি নেয়ার স্বাধীনতা দেয়া হচ্ছে না। এমন যদি হয়ে থাকে তাহলে আপনি জোরপূর্বের বিবাহের শিকার হতে যাচ্ছেন। বিস্তারিত জানতে হলে নিচের তত্থ গুলো পরে নিন: আপনার অথবা আপনার পরিচিত বা কাছের কেও যদি এমন পরিথিটির শিকার হয়ে থাকে তাহলে অবসসই ১৫২২ এই নম্বর টি তে কল করবেন: এটি সম্পূর্ণ বিনামূল্যে এবং বেনামি , প্রতিদিন ২৪ ঘন্টা খোলা।

যখন আপনাকে আপনার ইচ্ছার বিরুদ্ধে , মিথ্যা বলে অথবা জোর করে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ করা হয়ে, তখনি সেটা কে বলা হয়ে জোরপূর্বক বিবাহি। একজন বেক্তি কে বিয়ে করতে যদি বদ্ধ করা হয়ে সেটা কে অপরাধ এবং মানবধিকার লঙ্ঘন হিসেবে ধরা হয়ে: অর্থাৎ নিজের ইচ্ছে টি অন্য একজন এর উপর আরোপ করা, মানুষের ইচ্ছা ও সাম্যের নীতির বিরুদ্ধে যাওয়া হয়ে।

আন্তর্জাতিক মানবধিকার বলে “বিবাহ তখনি সম্পূর্ণ হয়ে , যখন দুই বেক্তি এতে রাজি হয়ে ” ( আর্টিকেল ১৬ )

জোরপূর্বক বিবাহবিয়াভ পিতামাতা বা পরিবারের সদস্যদের দ্বারা আরোপ করা হয়ে , ধর্মীয় বা সামাজিক নেতা দেড় মাদ্ধমে।

এটা  শারীরিক , মানসিক ও অর্থনৈতিক নির্যাতনের মাধ্যোমে করা হয়ে ( কিছু ক্ষেত্রে এমন হয়ে , জরুরি ডকুমেন্টস নিয়ে যাওয়া হয়ে , যেমন পাসপোর্ট ও জন্মনিবন্ধন সার্টিফিকেট )। বিবাহ আনুষ্ঠানিক ভাবেও হতে পারে , অনানুষ্ঠানিক ভাবেও হতে পারে , অনানুষ্ঠানিক ভাবে হয়ে থাকলেও পরিবার ও সমাজের চোখে সেটা পুরোপুরি বিবাহের সমানী হয়ে থাকে।  মনে রাখবেন যে এসব সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ এবং অনেক বোরো একটি অপরাধ , আপনার অধিকার আছে এবং থাজকবে নিজের জীবনের সিদ্ধান্ত নিজে নেয়ার এবং না বলার !

জি , জোরপূর্বক বিবাহ ইতালি’র আইন এর বিরুদ্ধে , ২০১৯ সালে আরেকটি নতুন আইন যোগ করা হয়েছে “কদিসে রোসসো ” নামক ( ১৯ জুলাই ২০১৯ এর আইন , ধারা ৬৯ ) জেতার লক্ষ্য হচ্ছে , এইসব নির্যাতনের শিকার যারা সেই মানুষ গুলো কে রক্ষা করা , আইন টি মূলত এই জোরপূর্বক বিবাহের বিরুদ্ধেই কাজ করার জন্য বানানো হয়েছে।

এই আইন গুলো ইতালি এবং ইতালির বাহিরে থাকা অথবা ইতালি তে বসবাস করে কিন্তু বাহিরে গিয়ে অপরাধ টি করছে , সব ক্ষেত্রেই বৈধ |

২০২৩ থেকে ( ১০ মার্চ ২০২৩ , ধারা ২০ )  ভুক্তভুগি দেড় “পেরমেসসো দি সজোর্ণ ” দিয়ে দেয়া হয়ে। মনে রাখবেন , আপনি যদি এমন পরিস্থিতির শিকার হয়ে থাকেন তাহলে মনে রাখবেন যে ইতালি তে এমন বিবাহ সম্পূর্ণ অবৈধ এবং এর থেকে বের হয়ে আশা যাবে।

ইতালি তে বিয়ে করার সর্বনিম্ন বয়স হচ্ছে ১৮। “অনানুষ্ঠানিক বিবাহ” বলতে বুঝানো হয়ে এখানে বিবাহ হচ্ছে ১৮ বছর বয়সের নিচে ২জন মানুষ এর মধ্যে।

কিছু বেতিক্রম  আছে যখন ১৮ বছর এর নিচে হলেও বিয়ে করা জায়েজ , কিন্তু সেই ক্ষেত্রে কিশোর আদালত এর থেকে অনুমুতি নিতে হয়ে এবং সর্বনিম্ন ১৬ বছর বয়স হতে হয়ে।  এই নিয়ম গুলো মেনে বিবাহ তে আগাতে হয়ে যাতে প্রত্যেকটা মানুষ সুরক্ষিত এবং অবগত থাকে।

অনেক কারণ থাকতে পারে এর পেছনে। কিছু বাবা মা এর ক্ষেত্রে সমাজ এবং পরিবার এর চাপের থেকে ঘটে , আবার কিছু বাবা মা এর ধর্মীয় অথবা সংস্কৃতিক কারণ থেকে থাকে , অনেক সময় আবার ম্যান সম্মান রক্ষার জন্য অথবা এর পেছনে অর্থনৈতিক কারণ ও হয়ে থাকে।

কারণ যেটাই হোক না কেন , জোরপূর্বক বিবাহ কখনোই ভালো কিছু না এবং সম্পূর্ণ ভাবে অবৈধ ইতালি তে

না।  পৃথিবীর কোনো ধর্ম জোরপূর্বক বিবাহের সাথে জড়িত না , যদিও অনেক সময় কিছু মানুশ বলে থাকে যে তার ধর্মের কারণে এসব করা হয়ে , ইটা সম্পূর্ণ ভাবে মিথ্যা সব ধর্মের ক্ষেত্রেই। আপনার ধর্ম কে ঠিক রেখেই আপনি বিবাহের জন্য মণ করে দিতে পারবেন।

মানবাধিকারের ইসলামী ঘোষণা “কোনো বেক্তি তার ইচ্ছার বিরুদ্ধে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হবে না ” (আর্টিকেল ১৯ a )

অবস্যই। জোরপূর্বক বিবাহ , এরেঞ্জ মেরিজ থেকে সম্পূর্ণ ভিন্ন। এরেঞ্জ মেরিজ এর ক্ষেত্রে বাবা মা ও পরিবার ছেলে মেয়ের জন্য পাত্র\পাত্রী খুঁজে পরিচপয় করিয়ে দিতে পারে তবে রাজি হওয়ার স্বাধীনতা পুরোটাই নিজের উপর ছেড়ে দেয়া হয়ে।

জোরপূর্বক বিবাহের ক্ষেত্রে বেক্তি কে জোর করা হয়ে এবং মণ করলে হুমকি দেয়া হয়ে|

না, যদিও আন্তর্জাতিক ভাবে অধিকাংশ মেয়ে রাই এই ধরণের পরিস্থিতি তে পরে তবে অনেক যুবক ও ছেলে মানুষ এর বেলায় ও এমন টি হয়ে থাকে।

ইটা যেকোনো মানুশ এর সাথে হতে পারে , লিঙ্গ তার যেটাই হোক।

আপনার যদি মনে হয়ে যে আপনিও এমন পরিস্থিতির শিকার হতে যাচ্ছেন , তাহলে আপনার যা করণীয়:

  • ১৫২২- এই নম্বর টি তে কল দিবেন ১৫২২ সম্পূর্ণ নিরাপদে বিনামূল্যে এবং বেনামি।

সোমবার থেকে রবিবার ২৪ ঘন্টা খোলা থাকে। সার্ভিস টি অনেক গুলো ভাষায় পাবেন যেমন ইংরেজি , স্প্যানিশ, ফ্রেঞ্চ, আরবি, ফার্সি, আলবেনিয়ান, রাশিয়ান, ইউক্রেনীয়, পর্তুগিজ। www.1522.eu ওয়েবসাইট এ আপনি চাইলে চ্যাটিং এর মাদ্ধমে ও কথা বলতে পারবেন।

  • সহিংসতা বিরোধী সেন্টার : আপনার কাছের সেন্টার এ যোগাযোগ করুন এক্ষনি। এই ওয়েবসাইট এ আপনি সম্পূর্ণ ইতালির আঁটিভিওলেন্জা সেন্টার অর্থাৎ সহিংসতা বিরোধী লিস্ট দেয়া আছে https://www.jumamap.it/it/violenza-di-genere/
  • পুলিশ\কারাবিনিয়েরি। যদি আপনি অনেক বোরো কোনো বিপদে পরে থাকেন তাহলে সাথে সাথে ১১২ নম্বর কল করবেন , বিনামূল্যে ২৪ ঘন্টা খোলা থাকে।

ARCI fatima২ নামক একটি ইউরোপিয়ান প্রজেক্ট এ পার্টনার হিসেবে জড়িত , জেতার লক্ষ্য হচ্ছে এই ধরণের নির্যাতন এর শিকার হয়ে মানুশ দেড় সাহায্যে কাজ করা , ( honour related violence HRV ) হানার কিলিং , জোরপূর্বক বিবাহ ও মহিলা যৌনাঙ্গে অঙ্গহানি নিয়ে স্পেশালয় কাজ করে। বিস্তারিত জানতে চাইলে অথবা প্রজেক্ট এ অংশগ্রহণ করতে চাইলে এই ওয়েবসাইট টি তে অবস্যই ঘুরে আসবেন  https://www.arci.it/campagna/fatima2/